শাহ মেরিন রিসোর্ট

পরিবার কিংবা বন্ধুবান্ধবের সাথে সুন্দর সময় কাটানোর জন্য ইদানিং বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে রিসোর্ট। ঢাকাবাসীরা সারা সপ্তাহের পরিশ্রমের পর একটু বিনোদনের জন্য রাজধানীর আশেপাশের রিসোর্টগুলোতে ভিড় জমাচ্ছেন। অল্প দূরত্বের কারণেই মূলত ঢাকার আশেপাশের কটেজগুলো বেশ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। তবে অনেকেই দূরত্ব আর যানজটের ঝামেলার কারণে ওইসব রিসোর্টেও যেতে পারছেন না। তাদের কথা মাথায় রেখে গাবতলীর হেমায়েতপুরের ধলেশ্বরী নদীর ধারে গড়ে উঠেছে ‘শাহ মেরিন রিসোর্ট’। প্রিয়জনদের সাথে সময় কাটাতে এখন আর বেশি দূরে যেতে হবে না, ঢাকা থেকে খুব কাছের এই রিসোর্টে সারা দিন সুন্দর সময় কাটাতে পারবেন।

গাবতলীর আমিনবাজার ব্রিজ থেকে মাত্র ১৩ কিলোমিটার দূরত্বে ধলেশ্বরী নদীর কোলে গড়ে উঠেছে এই রিসোর্ট। প্রকৃতির ছায়াতলে আধুনিকতার মিশেলের এই রিসোর্টে যেতে সময় লাগবে মাত্র ৪৫ মিনিট। মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর উপজেলার জমিরতা ইউনিয়নে ৩০০ শতাংশ জায়গার উপর গড়ে উঠেছে ‘শাহ মেরিন রিসোর্ট’। রিসোর্টের রুমগুলোতে প্রায় ৬০ জন অতিথির ধারণক্ষমতা আছে। তবে দিনভর কর্পোরেট ইভেন্ট, পিকনিক অথবা গেট টুগেদারের জন্য প্রায় ১ হাজার অতিথির ধারণক্ষমতা আছে শাহ মেরিন রিসোর্টে।

এছাড়া বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের কাপল প্যাকেজ। ডে-লং অথবা নাইট-স্টে দুইভাবেই এখানে অবস্থান করতে পারবেন অতিথিরা। ডে-লং প্যাকেজ ৪ হাজার টাকা (২ জন) আর নাইট-স্টে প্যাকেজ ৬ হাজার টাকা (২ জন)। জনপ্রতি ২ হাজার টাকায়ও রিসোর্টে অবস্থান করতে পারবেন। ১-৩ বছর বয়সী শিশুর কোনো টাকা লাগবে না। ৩-৭ বছর বয়সী শিশুদের ক্ষেত্রে ৫০% ছাড় দেয়া হয়।

প্যাকেজে থাকছে দুপুরের খাবার, সন্ধ্যার নাস্তা, শেয়ারিং এসি রুমসহ, সুইমিং পুল, ওয়াইফাই, গাড়ি পার্কিংসহ বেশ কয়েকটি সুবিধা। এছাড়া নৌকা ভ্রমণের ব্যবস্থায় রয়েছে। তবে নৌকা ভ্রমণ প্যাকেজে অন্তর্ভুক্ত না, নৌকা ভ্রমণ এর জন্য আলাদা চার্জ প্রযোজ্য।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *