মুসলিম বিশ্বের হতাশার দিন: Day of despair of the Muslim world

২৮ জানুয়ারি ২০২০ আরব ও মুসলিম বিশ্বের জনগণের জন্য চরম অপমান ও হতাশার দিন। এই দিন মুসলিম উম্মাহর ওপর একটি কথিত শান্তিচুক্তি আরোপ করে কার্যত তাদের ধর্মীয় মূল্যবোধ ও স্বাধীনতাকে উপহাসে পরিণত করেছে আমেরিকা। কথিত ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি বা শতাব্দীর সেরা চুক্তির নামে ফিলিস্তিনবিরোধী যে শান্তিচুক্তির ঘোষণা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দিয়েছেন, তা মুসলিম বিশ্বের স্বার্থবিরোধী, ফিলিস্তিনি মুসলিমদের জন্য তা ধ্বংসাত্মক। এই পরিকল্পনা কার্যকর হলে ফিলিস্তিনিদের অস্তিত্ব সংকট আরো প্রকট হবে। ট্রাম্পের এই শান্তিচুক্তি ইসরায়েলের আন্তর্জাতিক আইনবিরোধী কার্যক্রমের বৈধতা দেওয়ার নতুন পরিকল্পনা।

বিষয়টির সঙ্গে মুসলিম উম্মাহর আবেগ, অনুভূতি ও স্বার্থ জড়িত থাকলেও তাদের মতামত উপেক্ষা করেই এই চুক্তি ঘোষণা করা হয়েছে। এই চুক্তির মাধ্যমে ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের মধ্যকার চলে আসা দীর্ঘদিনের তিক্ততার অবসান হবে এমন দাবি করা হলেও প্রকৃতপক্ষে তা ফিলিস্তিনের ভূমি দখল করার নতুন কৌশলমাত্র। ডিল অব দ্য সেঞ্চুরির অন্যতম শর্ত পবিত্র নগরী আল কুদস (জেরুজালেম) ইসরায়েলের রাজধানী করা হবে। ফিলিস্তিনের রাজধানী হবে পূর্ব জেরুজালেমের সামান্য অংশ। পশ্চিম তীরে গড়ে ওঠা ইসরায়েলি বসতিকে অনুমোদন দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে এই চুক্তিতে। যা আন্তর্জাতিক আইনে অবৈধ। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মুসলিম বিশ্বের, মধ্যপ্রাচ্যের মিত্র দেশগুলোকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কিভাবে এই চুক্তি ঘোষণা করলেন সে প্রশ্নের উত্তর অনেকেরই জানা। আরব শাসকদের সমর্থন ছাড়া এই ঘোষণা দেওয়ার ঝুঁকি নিত না ট্রাম্প প্রশাসন। ক্রমেই বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠা মধ্যপ্রাচ্যে আরব শাসকদের কাছে ফিলিস্তিনের পবিত্র ভূমি ও ফিলিস্তিনি আরব মুসলিমদের চেয়ে ক্ষমতার নিশ্চয়তা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।
আরব মুসলিমরা এই অপমানজনক চুক্তি কতটা মেনে নেবে তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ আছে। এরই মধ্যে ফিলিস্তিন ও জর্দানের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। ফিলিস্তিন ভূমির ভবিষ্যৎ আমেরিকা ও তার মধ্যপ্রাচ্যের মিত্রদের হাতে যে মোটেই নিরাপদ নয়, বুঝতে বাকি নেই আরব মুসলিমদের। তারা হয়তো শাসক গোষ্ঠীর হাতে ফিলিস্তিন ভূমির ভবিষ্যৎ ছেড়ে দিতে রাজি হবে না। ফিলিস্তিনের ব্যাপারে তাদের যে আবেগ ও অনুভূতি রয়েছে অব্যাহত অবিচারের মুখে তা জেগে ওঠা অসম্ভব কিছু নয়। ফিলিস্তিন ভূমির ব্যাপারে আল্লাহ বলেছেন, ‘এটা এমন ভূমি যেখানে আমি বিশ্বের জন্য কল্যাণ রেখেছি।’ (সুরা : আম্বিয়া, আয়াত : ৭১)

মুসলমানরা বিশ্বাস করে পবিত্র এই নগরীর কল্যাণ জারি থাকবে কিয়ামত পর্যন্ত। এই কল্যাণ লাভের জন্য প্রয়োজন বহুমুখী কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক উদ্যোগ। মুসলিম বিশ্বের সম্মিলিত প্রচেষ্টা, আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক মিশন ও অন্যায়ের প্রতিবাদে তাদের সরব ভূমিকা ফিলিস্তিনি মুসলিমদের বিড়ম্বনা থেকে মুক্তি দিতে পারে। আল্লাহ আমাদের তাওফিক দান করুন।

28 January 2020 the day of extreme disgrace and despair for the people of the Arab and Muslim world. On this day, America has made an alleged peace agreement on the Muslim Ummah, the United States has turned their religious values and freedom. The United States President Donald Trump announced the peace agreement that anti-Palestinian peace agreement in the name of the century or the best deal of the century is against the Muslim world, it is destructive for Palestinian Muslims. If this plan is effective, the Palestinian existence will appear more. Trump’s peace agreement is a new plan to validate Israel’s anti-law activities.

The deal has been announced by ignoring the emotions, feelings and interests of the Muslim Ummah. The agreement has claimed that the long-term bitterness between Palestine and Israel will be an end, but it is indeed a new strategy to capture the land of Palestine. One of the terms of the century will be made the capital of the century, Al Quds (Jerusalem), the capital of Israel. The Capital of Palestine will be a small portion of East Jerusalem. This agreement has also been said to approve Israeli bus built on the west bank. Which is illegal in international law. Many people know the answer of how president trump declared this agreement by showing old people in the Muslim world, middle east allies. The Trump administration did not risk making this announcement without the support of Arab rulers. In The Middle East, the guarantee of power is much more important to the Arab rulers in the middle east and Palestinian Arab Muslims.
There is enough doubt about how much Arab Muslims will accept this insulting deal. Meanwhile, protests have begun in different places in Palestine and Jordan. The future of Palestine land is not safe in the hands of the United States and its middle east allies. They may not be willing to give up the future of Palestine land in the hands of the regime. It is not impossible to wake up with the emotions and feelings they have on the face of Palestine. Allah has said about Palestine land, ‘ this is the land where I have kept welfare for the world. 71, book: 71, Hadith: 71)

The Muslims believe that the welfare of this holy city will continue till resurrection. Many diplomatic and political initiatives are required for this welfare. Their active role in protest against the Muslim world’s combined efforts, international diplomatic mission and injustice could release the Palestinian Muslims from embarrassment. May Allah bless us with the ability.




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *