নিজের সাথে ভ্রমন

ভ্রমনপ্রিয় মানুষরা ব্যাস্ত সময়ের মাঝেও ভ্রমনের জন্য সময় বের করে নেয়। আমরা সবাই কমবেশি ঘুরতে পছন্দ করি । বছরের অন্তত ২/৩ বারতো যাওয়া হয়। সাধারণত আমরা বন্ধুদের সাথে বা পরিবারের সাথেই যাই। কিন্তু একা কি কখনো গেছেন ? শুধু নিজের সাথে ? নাহ বেশীরভাগ ক্ষেত্রে উত্তর না হবে। কারন আমার ভয় পাই একা চলতে। আমরা চাইনা হোটেল থেকে শুরু করে গাড়ি, খাওয়া- দাওয়া ঝামেলা নিতে । আরেকজনের উপর সব চাপিয়ে দিয়ে ঘুরতে আমরা বেশি পছন্দ করি। কিন্তু কখনো কি মনে হয়নি একবার যাই , শুধু নিজের সাথে । যেখানে আপনি শুধু একাই হাঁটবেন , একাই সব সিধান্ত নেবেন , যা মন চায় তাই করবেন ।  খুব বেশি দূরে না একা ঘুরতে চাইলে নিজের দেশের কিছু জায়গাতে( সাজেক, কক্সবাজার, রাঙামাটি, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, সুন্দারবান) ঘুরে আসতে পারেন।
কিছু কিছু ব্যাপার আছে, যা আপনাকে যাওয়ার আগে অবশ্যই জানতে হবে । কারন আপনি একা যাবেন, ওখানে আপনাকে পরামর্শ দেবার মতো কাওকে পাবেন না । জেনে নেই একা ভ্রমনের কিছু পরামর্শ ।
ব্যাগ একটাই নেবেন । সুটকেস টাইপের না, ব্যাক পেকার বা পেছনে ঝুলন্ত ব্যাগ নিবেন । এতে আপনার চলাচলে সুবিধা হবে । ব্যাক পেকার নিউ মার্কেটে পাবেন ,দাম ১২০০-২০০০ টাকার মধ্যে ।ইহায় ঝুলন্ত ব্যাগ । এই ব্যাগে ১৫/১৮ দিনের কাপড় আর প্রয়োজনীয় জিনিশ নিতে পারবেন।
দেশের বাইরে গেলে পাসপোর্ট সহ গুরুত্বপূর্ণ পেপার কপি করে রাখা ভালো ।
ভ্রমনের যা বাজেট করেছেন তার থেকে আর বেশি টাকা নিয়ে যাবেন । দেশের বাইরে আপনার টাকা শেষ হয়ে গেলে টাকা পাবেন কোথায় ? তাই বেশি করে নিয়ে যাবেন ।
যেখানে যাবেন ঠিক করেছেনে, তার সম্পর্কে তথ্য জোগাড় করুন । তথ্য না নিয়ে গেলে বিপদে পড়তে পারেন।
গুগল ম্যাপ ব্যাবহার করা শিখুন । এটা ভালোভাবে ব্যাবহার করতে জানলে আপনার হারিয়ে যাবার সম্ভাবনা কম ! অনেক সময় ট্যাক্সিওয়ালা বলবে অমুক যায়গা অনেকদূর, এত টাকা লাগবে, তখন আপনি ম্যাপে দেখে নিতে পারেন আসলেই কতদুর !
পাওয়ার ব্যাংক অবশ্যই সাথে নেবেন । যারা দীর্ঘ পথ পাড়ি দেবেন, তাঁরা যাত্রাপথে পাওয়ার ব্যাংক অবশ্যই নেবেন । এতে আপনার মোবাইল বন্ধ হবে না , আর আপনার পরিবার দুশ্ছিন্তা মুক্ত থাকবে ।
টাকা এক জায়গায় রাখবেন না । ভাগ করে ব্যাগ সহ ভিবিন্ন জায়গায় রাখবেন ।
ধরুন আপনার ফিরে আসতে লাগবে ২০০০ টাকা , তাহলে আপনি ৫০০০ টাকা প্রথমেই আলাদা করে রাখবেন । যত যাইহোক আসার আগ পর্যন্ত এই টাকাতে হাত দিবেন না ।
একা ভ্রমনে গেলে আপনি কথা না বলে থাকতে পারবেন না, আসে পাশের মানুষের সাথে স্বাভাবিক ভাবেই আপনি কথা বলবেন । কিন্তু সাবধান , অনেক দুষ্ট প্রকিতির মানুষ আছে যারা আপনার সাথে খাতির করে ক্ষতি করতে পারে । তাই দেখে শুনে মিশবেন ।
দেশের বাইরে দেশি ভাই বা বিদেশি ভাই যদি একি হোটেল রুমে থাকার অহবান করে তো ভুলেউ যাবেন না। কারন আপনি জানেন না তিনি কে ! বিপদে পড়ার থেকে একা থাকাই উত্তম ।
অনেকেই ভাবেন একা গেলে ছবি তুলে দিবে কে ? আমার অভিজ্ঞতায় দেখেছি পর্যটকরা একে অপেরের ছবি তুলে দেয় । আমাকেও অনেকের ছবি তুলতে হয়েছিলো । যদিও DSLR হাতে থাকায়, আমাকে অনেকে ক্যামেরা ম্যান ভেবেছিলো !
প্রয়োজনীয় ওষুধ নিন। মাথা বেথা থেকে শুরু করে জ্বর, পেট খারাপের ওষুধ নিতে ভুলবেন না। নিয়মিত হোটেল আর কোন এলাকায় আছেন তার আপডেট পরিবার বা কাছের কাওকে জানাবেন।
নিজের মতো করে সময় কাটান, উপভোগ করুন।
একা ভ্রমন আপনার অনেক বড় একটি অবিজ্ঞতা হয়ে থাকবে। অনেক গল্প , অনেক সৃতি জমা হবে যা আপনি আপনার নাতি -নাতনিকে শুনাতে পারবেন । পরনির্ভরশীলতা কাটিয়ে নিজেই হাঁটুন , নিজের স্বাধীনতাকে কাজে লাগান। আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য একা ভ্রমন অনেক জরুরী । জীবনে অন্তত একবার একা ভ্রমনে যাওয়া উচিৎ। মনে রাখবেন যারা বাধা দিবে তার আসলে ভীতু , একা যাওয়ার সাহস তাদের নেই।

তথ্যঃ কালেক্টেড




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *