সাপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে ন্যাশনাল টিউবস

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ৭২ লাখ ২৫ হাজার ৬৩০টি শেয়ার ১২০ কোটি ৮৩ লাখ ৫৩ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের ছয় দশমিক ৩৭ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর সাত দশমিক ৫৬ শতাংশ কমেছে। সূত্র: ডিএসই।

সূত্র মতে সপ্তাহের শেষদিনে কোম্পানিটির শেয়ারদর আট দশমিক ৩৬ শতাংশ বা ১৪ টাকা ২০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ১৫৫ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ছিল ১৯ কোটি ২৮ লাখ ৯০ হাজার টাকা। শেয়ারটির সমাপনী দর দাঁড়িয়েছে ১৫৫ টাকা ২০ পয়সায়। ওইদিন কোম্পানিটির শেয়ারদর সর্বনিম্ন ১৫৩ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১৭০ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়। আর গত এক বছরে শেয়ারটির দর ৯৮ টাকা ৩০ পয়সা থেকে ১৭৮ টাকায় ওঠানামা করে।

৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি লোকসান (ইপিএস) হয়েছে দুই টাকা পাঁচ পয়সা আর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯৩ টাকা ৬২ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে দুই টাকা ৮৬ পয়সা লোকসান ও ২১৫ টাকা ২০ পয়সা। আর ২০১৮ সালে লোকসান করেছে পাঁচ কোটি ৯০ লাখ ৫০ হাজার টাকা, যা তার আগের বছর একই সময় লোকসান ছিল সাত কোটি ৪৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির ১০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৩১ কোটি ৬৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫২৫ কোটি ৫৬ লাখ ২০ হাজার টাকা।

কোম্পানিটির মোট তিন কোটি ১৬ লাখ ৫৬ হাজার ১৮৫টি শেয়ার রয়েছে। মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা বা পরিচালকের কাছে শূন্য দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ, সরকারি ৫১ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ২০ দশমিক ১৪ শতাংশ এবং ২৮ দশমিক ৮১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে। উল্লেখ্য, ‘এ’ ক্যাটেগরির ন্যাশনাল টিউবস লিমিটেড ১৯৮৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *